সুপার সাইক্লোন সিত্রাং সর্বশেষ খবর

ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন সিত্রাং এবং ধীরে ধীরে ভয়াবহ আকার নিচ্ছে এটি। দিওয়ালির আগে আক্রমণ চালাতে পারে এই বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড়। আলোচনার বিষয়সমুহ নিম্নরূপঃ

  • তো এই ঘূর্ণিঝড়টি কোন সাগরে তৈরি হয়েছে? 
  • কোথায় কোথায় ধ্বংস হবে এই ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড়টি? 
  • কোন উপকূলে কত কিলোমিটার বেগে আছরে পড়বে?
  • কি চালাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা? 

আবহাওয়াবিদরা বলছেন বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়টি সিত্রাং ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে আক্রমণের জন্য। ঠিক দিওয়ালির আগেই আঘাত আনবেই এই বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড়টি এমন জানিয়েছে আবহাওয়াবিদরা। 

২০০৮ সালের ঘূর্ণিঝড় আমফাল যে এলাকায় আঘাত এনেছে সেখানেও সিত্রাং পৌঁছানোর একটি ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। শুধু এই নয়, আবহাওয়াবিদদের মতে ঘূর্ণিঝড় সরাসরি আঘাত আনতে পারে বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে। জানা গেছে এই ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সমুদ্রপৃষ্ঠের বায়ুচাপ ৯৪১ পর্যন্ত পৌছাবে। 

বাতাসের গতিবেগ সর্বোচ্চ ২১০ থেকে ২৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় পৌঁছাতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এই গতিতে উপকূলে আঘাত আনলে ২০০৭ সালের সিডরের মতোই ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এই ঝড়ের কারণে উপকূলীয় এলাকায় ১৫ থেকে ২০ ফুট পর্যন্ত জ্বরের সম্ভাবনা রয়েছে। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার নির্দেশ অনুসারে, এইবারের ঝড়ের নাম ‘সিত্রাং’ নামকরণ করেছে থাইল্যান্ড। 

এই ঘূর্ণিঝড়ের তথ্য উঠেছে সে মার্কিন গবেষণায়। বলা হয়েছে কালীপুজোর আগেই দিয়ে আসবে এই সুপার সাইক্লোনটি। আর তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিজ্ঞানীরা। অর্থাৎ প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। 

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, বঙ্গোপসাগরে এই ঘূর্ণিঝড়টি তৈরি হয়েছে। আর তোর গতিবেগ ঘন্টায় ২০০ থেকে ২৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে। যা তান্ডবলীলা চালানোর জন্য যথেষ্ট হবে। যে ঘূর্ণিঝড়টি নিম্নচাপে পরিণত হবে ১৭ থেকে ১৮ অক্টোবর এর মধ্যে এবং এর মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নেবে এমনটাই জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। 

প্রসঙ্গত এই সময় বঙ্গোপসাগরে কোন ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হলে এর নাম হবে সিত্রাং। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার অধীনস্থ জাতিসংঘের এসিও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সাগরের তীরের তেরোটি দেশের যেমন বাংলাদেশ মায়ানমার ভারত পাকিস্তান মালদ্বীপ থাইল্যান্ড ও শ্রীলংকা ওমান কাতার সংযুক্ত আরব আমিরাত ইরান সৌদি আর ইয়েনেম আবহাওয়াবিদদের সংস্থা প্রদত্ত ঘূর্ণিঝড়টির নাম হচ্ছে সিত্রাং। 

শেষ আপডেটঃ

(১) চলতি মাসের মাঝামাঝি সময় বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে যা পরবর্তী সময়ে রূপ নেবে অতি ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড়ের।

(২) আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানাচ্ছে অক্টোবর মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি লোগো চাপ সৃষ্টি হবে যার মধ্যে একটি অতি ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নেবে। তবে এটি কখন বা কবে সৃষ্টি হবে তা সঠিক ভাবে বলা যাচ্ছে না কারণ কোনো একস্থানে কয়েকটি ধাপ অতিক্রম সমন্বয়ে একটি ঘুর্নিঝড় সৃষ্টি হয়। 

Leave a Comment